কয়েক মাস আগেই চালু হয়েছে ফেসবুক রিঅ্যাকশন বাটন। কিন্তু এরই মধ্যে অনেক বিতর্ক শুরু হয়েছে ফেসবুকের রিঅ্যাকশন বাটন নিয়ে।কারণ ডিজলাইক বাটনের পরিবর্তে ওই রিঅ্যাকশন বাটনগুলো দিয়ে আবেগ প্রকাশের সুযোগ করে দিয়েছে ফেসবুক।

সম্প্রতি বেলজিয়ামের পুলিশ স্থানীয় অধিবাসীদের ফেসবুকের রিঅ্যাকশন বাটন ব্যবহারের বিষয়ে সতর্ক করেছে। কারণ ফেসবুকের রিঅ্যাকশন বাটনফেসবুকের রিঅ্যাকশন বাটন ব্যবহার করলে প্রাইভেসি বা ব্যক্তিগত গোপনীয়তা লঙ্ঘিত হতে পারে বলে অভিযোগ উঠছে।

তবে রিঅ্যাকশন বাটন মূলত ফেসবুকের তথ্য সংগ্রহের একটি কৌশল। ওই বাটনগুলো থেকে সংগৃহীত তথ্য বিশ্লেষণ করে মানুষ কোন সময় বিজ্ঞাপনে বেশি ক্লিক করবে, তা নির্ধারণ করে ফেসবুক। সে অনুযায়ী তারা বিজ্ঞাপন দেখায়।অবশ্য ফেসবুকও বিষয়টি স্বীকার করেছে। আগেই তারা বলেছে, ব্যবহারকারীর তথ্য সংগ্রহ করে তা ব্যবসার কাজে লাগানো তাদের বিপণনের অন্যতম একটি কৌশল।

বেলজিয়ামের পুলিশের ভাষ্য, রিঅ্যাকশন বাটনগুলো ব্যবহার করলে ব্যবহারকারীর পছন্দ-অপছন্দ বা আবেগ সরাসরি ফেসবুক বুঝতে পারে। আর তারা সেই তথ্য সংগ্রহ করে সুবিধা মতো বিজ্ঞাপন দেখাতে পারে।