এচেলন এশিয়া সামিট ২০১৬’র জন্য পুরো এক মাস জুড়ে বাংলাদেশের সবচেয়ে সম্ভাবনাময় স্টার্টআপ খুঁজে বের করার কাজটি করে যাচ্ছিল ই-টুয়েন্টি সেভেন।অনলাইন পিচিং সেশনের পর বাংলাদেশ পর্বের জাজেস চয়েস অ্যাওয়ার্ড জিতে নেয়  ট্রাভেল স্টার্টআপ ট্রিপলি

নিজেদের সাফল্য সম্পর্কে ট্রিপলির ফাউন্ডার এবং সিইও রাফি মুস্তাফা এসডি এশিয়াকে জানান, ‘ বাংলাদেশী স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম এবং ট্রিপলির জন্য নিঃসন্দেহে বেশ বড় খবর এটি।ইনভেস্টরদের সামনে স্টার্টআপদের পিচিং,শো-কেস এবং বিভিন্ন সেশনে অংশ নেয়ার জন্য এমন উদ্যোগের জন্য এসডি এশিয়া এবং ই-টুয়েন্টি সেভেনকে ধন্যবাদ জানাই।সিঙ্গাপুর এচেলন এশিয়া সামিট ২০১৬ তে বাংলাদেশ এবং ট্রিপলিকে তুলে ধরার জন্য আমরা এখন উন্মুখ হয়ে আছি’।

raf3

ট্রাভেল এজেন্সি এবং ট্যুর অপারেটরদের জন্য অনলাইন মার্কেটপ্লেস হিসেবে কাজ করছে ট্রিপলি। তাছাড়া ভিসা প্রসেসিং, ট্যুর ডিলস, প্যাকেজেস, ক্রুজ ডিলস, হলিডে প্যাকেজ এবং ট্যুরিজম সংক্রান্ত সব সেবা প্রদান করে তারা।

পারিবারিক ভাবেই ব্যবসার সাথে পরিচিত ছিলেন রাফি। ট্রিপলি ছাড়াও তিনি ফ্যাশন ই-কমার্স সাইট জুমজুমের সহপ্রতিষ্ঠাতা।

এ বছর বাংলাদেশের ২৫টিরও বেশী স্টার্টআপ তিন মিনিটের অনলাইন পিচিং সেশনে অংশ নিয়েছিল ।তার মধ্যে ২ মিনিটের প্রশ্নোত্তর পর্ব ছিল। এই প্রক্রিয়াতেই বাকিদের হারিয়ে বাংলাদেশ পর্ব জিতে নিয়েছে ট্রিপলি। এচেলন এশিয়া সামিট ২০১৬ বাংলাদেশ পর্বের লোকাল পার্টনার ছিল এসডি এশিয়া।