ইউটিউবেই এখন শিক্ষার অনেক কন্টেন্ট পাওয়া যায়। তাছাড়া অনলাইনেই এখন শিক্ষামূলক কন্টেন্ট পাওয়া যাচ্ছে। সেসবের সাথে নতুন এক স্টার্টআপের সাথে আজকে পরিচিত হতে পারেন।

www.edutubebd.com ঠিকানার ওয়েব পোর্টালটি চালু হয়েছে ২৯ মার্চ। ভিডিও, ছবি, প্রেজেন্টেশন, নোট আর অ্যানিমেশনে স্কুল–কলেজের পাঠ্য বিষয়গুলো রয়েছে এতে।

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিয়ে চমৎকার এক সামাজিক নেটওয়ার্ক হবে এডুটিউব। তবে ইচ্ছামতো যেকোনো কনটেন্ট তৈরি করে ছড়িয়ে দেওয়ার সুযোগ নেই।শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা যেন বিরক্ত না হন তাই ওয়েবসাইটটিতে আপাতত কোন বিজ্ঞাপন নেওয়া হচ্ছে না।

আগামী এক বছরে ঢাকা শহরের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নামে চ্যানেল খোলার পরিকল্পনা এডুটিউবের। অন্তত ঢাকার শিক্ষকেরা যেন অ্যাকাউন্ট খুলে তাঁদের নোটগুলো সবার সঙ্গে ভাগাভাগি করেন, সে চেষ্টা করা। তবে আগামী পাঁচ বছরে তিনটি ধাপে পরিকল্পনা সাজানো হচ্ছে। প্রথম ধাপে দেশের সব স্কুল এডুটিউবের আওতায় এনে তাদের চ্যানেলে অন্তত প্রতিবছরের প্রশ্ন হালনাগাদ করার ইচ্ছাও আছে উদ্যোক্তাদের। দ্বিতীয় ধাপে বিষয়বস্তু তৈরিতে সহায়ক কিছু সফটওয়্যার ওয়েব পোর্টালটিতে যোগ করা হবে। এর মধ্যে কথা থেকে লেখা (স্পিচ-টু-টেক্সট), স্বয়ংক্রিয় অনুবাদক, এক ফরম্যাট থেকে অন্য ফরম্যাটে রূপান্তরের সুবিধা থাকবে। তৃতীয় ধাপে চেষ্টা করা হবে এমন কোন ডিজিটাল যন্ত্র শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেওয়ার, যাতে একই সঙ্গে সব পাঠ্য বিষয়বস্তু থাকবে। শিক্ষার্থীরা চাইলেই যেন যেকোনো সময় যেকোনো বিষয়বস্তু দেখতে পারে। বিশেষ কোন নেটওয়ার্কে বিশেষ কোন ওয়েবসাইট বিনা মূল্যে ব্যবহারের সুবিধা ইতিমধ্যে পাওয়া যাচ্ছে।