নতুন একটি পণ্য উন্মোচন করার পর সফল বা ব্যর্থ হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় ৫০%। অনেক সময় দেখা যায় অনেক টাকা খরচ করে পণ্য উন্মোচনের জন্য অনুষ্ঠান করলেও পণ্যটি বাজারে তেমন একটা লাভ করতে পারে না। ছোট- খাট কিছুর ভুলের জন্য হতে পারে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা।আবার অনেক সময় পণ্য উন্মোচনের সময় অল্প টাকা ব্যায় করেও সফল হওয়া সম্ভব। কারণ এক্ষেত্রে বেশ কিছু কৌশল  অবলম্বন করলে কাজে আসে।

 কয়েকটি কৌশল অবলম্বন করত পারলে পণ্য উন্মোচনে প্রায় শতভাগ সফল হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ব্যবসার প্রয়োজনে প্রায় সময়ই নতুন নতুন পণ্য উন্মোচন করার প্রয়োজন পড়ে। তাই  ব্যবসায়ীরা দেখে নিতে পারেন সফলভাবে পণ্য উন্মোচনে চারটি কৌশল।

 

১। আগ্রহ তৈরি করা

 

আইফোন তাদের পণ্য বাজারে ছাড়ার আগে ক্রেতাদের মধ্যে অনেক বেশী আগ্রহ তৈরি করতে পারে। নতুন কি পণ্য আসছে তা নিয়ে আগে থেকেই আগ্রহ তৈরি করতে হবে। এতে করে পণ্যটির খুব দ্রুত জনপ্রিয়তা পাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়। তাই আগে থেকেই পণ্য উন্মোচনের তারিখ ঘোষণা করে দিতে হবে। সবার মাঝে আগ্রহ তৈরি করতে পণ্য উন্মোচনের দিনে কোন গেম শোর আয়োজন করা যেতে পারে।

 

২। পণ্য নিয়ে ক্রেতাদের আগে থেকেই ধারণা দিয়ে হবে

 

পণ্য উন্মোচনের চূড়ান্ত অনুষ্ঠান করার আগে থেকে ছোট ছোট অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ক্রেতাদেরকে সেই পণ্যটি সম্পর্কে ধারণা দেয়া শুরু করতে হবে। সবাইকে বিভিন্ন মিডিয়ার মাধ্যমে পণ্যটি সম্পর্কে জানাতে হবে। মার্কেটিং এর প্রচলিত ধারনার মত প্রচারণা না চালিয়ে সুন্দর উপায়ে প্রচারণা চালাতে হবে।

 

৩। পণ্যটি কিনতে মানুষকে উৎসাহ দিতে হবে

 

কোন একটি পণ্য কিনতে মানুষকে বিভিন্ন অফার দিতে হবে। ‘এই অফারটি চলবে মাত্র সাত দিনের জন্য’ এমন ধরাবাঁধা সময় নির্বাচন করে দিলে ক্রেতাদের মধ্যে পণ্য কেনার তাগিদ বাড়তে থাকবে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কিনলে স্পেশাল কিছু অফার দেয়া যেতে পারে।এতে করে ক্রেতারাও খুশি থাকবে।

 

৪। অফারে লেখা যেতে পারে ‘স্টক সীমিত’

 

মানুষের মধ্যে সব সময়ই আগে আগে পণ্য কেনার তাগাদা থাকে। তাই যখনই কোন বিজ্ঞাপনে লেখা হয় স্টক সীমিত তখনই ক্রেতারা আরও বেশী আকৃষ্ট হয় পণ্যটি কেনার জন্য। এজন্য অফারে লেখা যেতে পারে ‘লিমিটেড স্টক’ কিংবা ‘স্টক সীমিত’র মত কথাগুলো।

Tousif Alam